nagorikkanthanagorikkantha

স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক একটি পবিত্রতম সম্পর্ক। আর এই দাম্পত্য সম্পর্ক সুখের হোক, আনন্দের হোক, আন্তরিকতাপূর্ণ হোক কে না চায়? দাম্পত্য সম্পর্ক কীভাবে মজবুত করা যায় তা নিয়েই আলোচনা করেছেন যুক্তরাজ্যের নামকরা সম্পর্ক বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক জ্যাকি গ্যাব। একটি শক্তিশালী বা মজবুত দাম্পত্য সম্পর্কের তিনটি দিক নিয়ে আলোচনা করছেন তিনি

সম্প্রতি অধ্যাপক জ্যাকি গ্যাব ও ড. মেঘ জন বার্কার যৌথভাবে ‘দ্য সিক্রেট অব ইনডিউরিং লাভ: হাউ টু মেক রিলেশনশিপস লাস্ট’ নামে একটি বই প্রকাশ করেন। নতুন বই প্রকাশ উপলক্ষে যুক্তরাজ্যভিত্তিক পত্রিকা দ্য ইন্ডিপেনডেন্টকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জ্যাকি গ্যাব জানালেন সম্পর্ক দীর্ঘস্থায়ী করার গোপন রহস্য। নিচে সম্পর্ক দীর্ঘস্থায়ী করার তিনটি দিক তুলে ধরা হলো:

যোগাযোগ: যোগাযোগ যেকোনো সম্পর্কের ক্ষেত্রেই অন্যতম নিয়ামক হিসেবে কাজ করে। আর দাম্পত্য সম্পর্ক শক্তিশালী এটি অন্যতম ভূমিকা পালন করে। অধ্যাপক জ্যাকি গ্যাবের মতে, কোনো দম্পতি যদি কোনো বিষয় নিয়ে নিজেদের মধ্যে বিশদভাবে কথা বলে তা অনেকটা ওষুধের মতো কাজ করে। তবে কেউ চাইলে অন্যভাবেও যোগাযোগ করতে পারে।

জ্যাকি গ্যাব আরও বলেন, এই ধারণাটিকে অনেকের কাছে হাস্যকর বা বিরক্তিকর মনে হতে পারে। বাহ্যিক দৃষ্টিকোণ থেকে অনেকেই এ বিষয়টি নাও বুঝতে পারে। কিন্তু এটি দম্পতিদের মধ্যে যোগাযোগের একটি ইতিবাচক উপায় হতে পারে। অনেক দম্পতি কথা না বলে হাঁটতে হাঁটতে, টেলিভিশনের সামনে জড়াজড়ি করে বসে বা অন্য কোনো ইতিবাচক উপায়ে যোগাযোগ করতে পারে।

ব্যতিক্রম কিছু করুন: ব্যাপক গবেষণা করে অধ্যাপক গ্যাব এবং ডা: বার্কার খুঁজে পেয়েছেন, ব্যাপারটা অনেকটা কারো জন্য সকালের এক কাপ চা বানানোর মতো। কাজটা অনেক ছোট কিন্তু এর প্রভাব অনেক দীর্ঘ।

অধ্যাপক গ্যাব বলেন, আপনার সঙ্গীর জন্য কদাচিৎ দামি উপহার ক্রয় করতে পারেন। যা অনেক বেশি প্রভাব ফেলতে পারে। এটি আপনার অতীতের দোষ দূর করতে সহায়তা করবে। সাংসারিক ক্ষেত্রে, ছোটখাটো একটা ব্যাপার কারো জন্য বিশাল হতে পারে।

হাসুন বা মজা করুন: অধ্যাপক জ্যাকি গ্যাব বলেন, হাস্যকর সিনেমার মতো এত হাসার দরকার নেই। যখন হাস্যরসাত্মক কোনো ঘটনা ঘটবে তখনই আপনার মজার অনুভূতি শেয়ার করতে পারেন। যখন দেখবেন কোনো বিষয় নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে তুমুল তর্কযুদ্ধ শুরু হয়ে গেছে তখন কোনো আনন্দদায়ক কথাবার্তা বলতে পারেন। এতে পরিস্থিতি হালকা হবে এবং নিজের মধ্যে আন্তরিকতা বাড়বে।

৩০ অক্টোবর, ২০১৭ ১৬:৪৬ পি.এম