nagorikkanthanagorikkantha

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যবিপ্রবি) ছাত্রলীগের এক নেতা অস্ত্রসহ ধরা পড়েছেন। শুক্রবার বিকেলে ক্যাম্পাস থেকে তাকে আটক করে পুলিশ।

আটক ছাত্র হোসাইন ইছাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের একমাত্র ছাত্রাবাস শহীদ মসিয়ূর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। পুলিশের হাতে ছাত্রলীগের এই নেতা আটক হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিষয়টি চাউর হলেও কর্তৃপক্ষ প্রথমে স্বীকার করতে চাননি।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, শুক্রবার বিকেল তিনটার কিছু সময় আগে ইছাদ ও তার কয়েক সহযোগী অস্ত্রসহ ক্যাম্পাসের অ্যাকাডেমিক ভবনের সামনে ঘোরাফেরা করছিলেন। এসময় অদূরে থাকা পুলিশ তাদের চ্যালেঞ্জ করে। কয়েকজনের শরীর তল্লাশি করে পুলিশ ইছাদের কাছে অস্ত্র, গুলি ও ম্যাগজিন পায়। তাকে আটক করে বাকিদের ছেড়ে দেয় পুলিশ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নিকট অবস্থিত সাজিয়ালি পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই আসাদুজ্জামানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এই বিষয়ে এখন কোনো কথা বলবো না। পরে যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন কেটে দেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক মিজানুর রহমানও বলেন, এই বিষয়ে নিয়ে পরে কথা বলবো।

তবে সন্ধ্যা সোয়া পাঁচটার দিকে যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাহউদ্দিন শিকদার ঘটনা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ৭ পয়েন্ট ৬২ বোরের একটি পিস্তল, চার রাউন্ড গুলি ও একটি ম্যাগজিনসহ ইছাদ নামে এক ছাত্রকে আটক করা হয়েছে। সে এখন পুলিশ হেফাজতে আছে।

আটক ইছাদ ছাত্রলীগ মসিয়ূর রহমান হল শাখার সহ-সভাপতি বলে নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তিনি ছাত্রলীগ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সুব্রত বিশ্বাসের ঘনিষ্ঠ বলেও শিক্ষার্থীরা জানান।

তবে ছাত্রলীগ সভাপতি সুব্রত ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

১১ নভেম্বর, ২০১৭ ১৫:০৬ পি.এম