nagorikkanthanagorikkantha

অনেক দিন থেকেই মানুষের সঙ্গে জিনের বাদশা পরিচয়ে প্রতারণা করে আসছিল নাজমুল হুদা (২৯)। জিন তাড়ানো, বিভিন্ন অসুখে পানি পড়া দিয়ে সহজ সরল মানুষের পকেট খালি করে আসছিল সে। এমন অভিযোগ পেয়ে সংসদ সদস্য নিজেই কৌশলে রাজশাহী নগরীর গ্রেটার রোড মসজিদের পাশে তার বাড়িতে ডেকে নিয়ে জিনের বাদশাকে পুলিশে সোপর্দ করেন।

রোববার সকালে রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন জিনের বাদশা নাজমুল হুদাকে ধরিয়ে দেন। প্রতারক নাজমুল হুদা পবা উপজেলার দামকুড়া এলাকার আব্দুস সালামের ছেলে।

রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন জানান, নাজমুল হুদা নিজেকে জিনের বাদশা বলে পরিচয় দেয়। জিন তাড়ানো, পানি পড়া, তেল পড়ার মাধ্যমে বিভিন্ন অসুখ সারানোর নাম করে দীর্ঘদিন ধরেই সে মানুষের পকেট খালি করে আসছিল। এ বিষয়ে সুলতানা রাজিয়া নামে এক নারী তার কাছে অভিযোগ নিয়ে আসে। এরপরেই তাকে কৌশলে বাড়িতে ডেকে নিয়ে আসা হয় ও পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

প্রতারণার শিকার সুলতানা রাজিয়া নামে ওই নারী জানান, ৯ম শ্রেণিতে পড়ুয়া তার মেয়েকে জিনে ধরেছে বলে ১৪ মাস থেকে নাজমুল হক প্রতারণা করে আসছিল। জিন তাড়ানোর নাম করে প্রায় সময় নাজমুল হুদা তার কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিত। মেয়ের সুস্থতার কথা চিন্তা করে তিনি প্রতারক নাজমুল হুদাকে অর্থ দিয়েছেন। কিন্তু তার মেয়ে সুস্থ হয়নি। অবশেষে বিষয়টি তিনি সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিনকে জানান।

বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমান উল্লাহ জানান, প্রতারক নাজমুল হুদাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

০৩ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৪:৪৫ পি.এম