nagorikkantha

এবার গালাগালি শুরু করতে হবে অকথ্য ভাষায়,
প্রয়োজনে ছুড়তে হবে নোংরা ওদের মুখে।
যারাই প্রবাসীদের নিয়ে কটুক্তি করবে করতে হবে প্রতিবাদ।
বেয়াদবদের আদব শেখাতে হতে হবে বেয়াদব।
রাস্তায় দৌড়ায়ে জুতা দিয়ে পিটাতে হবে।
বন্ধ করতে হবে ব্যাংকিং চ্যানেলে অর্থ প্রেরণ।
শালা বাইঞ্চোতেরা দেশে বসে দুর্নীতি করবে
বিমান বন্দরে চোরাচালন করবে
শুয়োরের বাচ্চারা প্রবাসীদের লাগেজ ব্যাগেজ নিয়ে টানাটানি করবে
কুত্তার বাচ্চারা মিষ্টি,রান্না করা খাবার কাপড় চোপড় কিছুই বাদ দেয়না
রেখে দিতে চায় সব।
চোরাচালীনীদের সাথে করে আঁতাত
বিমান বন্দরে পার্কিং এ ঘুষ খায়,গাড়ী ঢুকাতে হাত পাতে
ইতর, হারামীদের কাছে আবেগ মুল্য হীন
বিমান থেকে বেল্টে আসার মাঝে মালামাল গায়েব
বিদেশে বিমান বন্দরে যাত্রীদের সন্মান দিয়ে কথা বলে
আমাদের দেশী ছাগলেরা সবাইকে চোর,ভিখারী,রাস্তার ফুটপাতের অমানুষ ভাবে।
এসো গালি দেই প্রাণ ভরে
জ্বালা মিটাই।
প্রবাসীরা দুশমন দেশের তাইতো
যে যেভাবে পারে অপমান করে
লাঞ্ছিত করে।
সরকার,বিরুধী দল,ডান দল,বাম দল,ধর্মীয় দল,চেতনাবাজ,লুটতরাজ,সুবিধাবাজ,কবি সাহিত্যিক,সাংবাদিক,রাজনীতিবিধ,পেশাজিবি,শিক্ষিত,অশিক্ষিত সবাই
মজা লয়,চুপ থাকে।
বাংলাদেশে প্রায় প্রত্যেক ঘরে প্রবাসী আছে।
তাই বলতে পারে দেশে দরিদ্র নাই।
নাইলে লম্বা ঝাড়ি কোথাও যাইতো।
প্রবাসীরা নিজের ভিটে বাড়ি জমি জিরাত সম্পত্তি বিক্রি করে বিদেশে আসে
সরকার, বিরুধী কারো দয়ায় নয়।
প্রবাসীদের চেয়ে খাঁটি দেশ প্রেমিক পাওয়া মুশকিল।
প্রবাসীরা দেয়, নেয়না।
তার পর ও প্রবাসীদের লাঞ্চিত হতে হয়।
এবার হবে প্রতিবাদ।

১৮-১২-২০১৭ ইং
সিঙ্গাপুর

২১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৫:৪৫ পি.এম