nagorikkantha

চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবানী মাংস এদেশের সব প্রান্তেই বেশ বিখ্যাত, তবে চট্টগ্রামে এর জনপ্রিয়তা অভাবনীয়। এই জনপ্রিয় রান্নার জন্য চট্টগ্রামের বাবুর্চিদের ডাক পরে দেশের বিভিন্ন স্থানে। তবে এখন আর চিন্তা নেই, আজ আপনাদের সাথে শেয়ার করছি এই বিখ্যাত রান্না তৈরির রেসিপি, যার সাহায্যে আপনিও এখন পারবেন চট্টগ্রামের সেই বিখ্যাত বাবুর্চিদের মত মেজবান মাংস রান্না করতে!

উপকরণ–১:
৪ কেজি গরুর মাংস
২ কেজি পেঁয়াজ (অর্ধেক বাটা, অর্ধেক কুঁচি)
২০০ গ্রাম আদাবাটা
২০০ গ্রাম রসুনবাটা
৫০ গ্রাম সাদা সরিষাবাটা
৫০ গ্রাম চিনাবাদামবাটা
২০০ গ্রাম নারকেলবাটা
২ টেবিল চামচ ধনে গুঁড়া
২ টেবিল চামচ জিরা গুঁড়া
৩ টেবিল চামচ মরিচ গুঁড়া
২ টেবিল চামচ হলুদ গুঁড়া
পরিমাণ মতো গরমমসলা
১ কেজি টমেটো
১/২ কেজি সরিষার তেল
৩৫০ গ্রাম ঘি
১০টি কাঁচা মরিচ
পরিমাণমতো লবণ

উপকরণ-২:
৬টি মুখ চেরা এলাচি
৩টি দারুচিনি (২ ইঞ্চি)
৮টি লবঙ্গ
১/২ টেবিল চামচ গোলমরিচ
২ টেবিল চামচ মেথি
১টি জায়ফল
১ টেবিল চামচ জয়ত্রী
১ চা-চামচ
উপকরণ-৩:
জিরা ২০ গ্রাম
ধনে ১০ গ্রাম
রাঁধুনি ১৫ গ্রাম
শুকনা মরিচ ১০টি
তেজপাতা ৮টি

প্রণালি:

প্রথমে ৪ কেজি মাংস টুকরা করে ভালমতো ধুয়ে পানি ঝরাতে হবে। গরম পানি, ঘি ও কাঁচা মরিচ ছাড়া উপকরণ -১ এর সব মসলা দিয়ে মাংস মেখে একটি সসপ্যানে মাংসটি বসাতে হবে। তারপর পানি দিয়ে ভালো ভাবে নেড়ে দিতে হবে। উপকরণ-৩ এর মসলাগুলো ভেজে, গুঁড়া করে মাংসে দিতে হবে। মাঝারি আঁচে ঢাকনা দিয়ে রান্না করতে হবে। মাঝেমধ্যে নেড়ে দিতে ভুলবেন না। যদি পানি শুকিয়ে যায় তাহলে আর একটু গরম পানি দিয়ে নিন। বেশি দেওয়া যাবে না। ঝোল মাখা মাখা রাখতে হবে। এর মধ্যে উপকরণ-২ এর মসলা গুলি ভেজে গুঁড়া করে নিন। মাংস সিদ্ধ হওয়ার পর ওপরে যখন তেল ভেসে উঠবে কাঁচা মরিচ, গুঁড়া মসলা এবং বাকি মসলা ও ১০০ গ্রাম ঘি দিয়ে নেড়ে নামিয়ে নিতে হবে। এরপর ওপরে বেরেস্তা দিয়ে সার্ভিং ডিশে গরম গরম চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবানী মাংস পরিবেশণ করুণ।