nagorikkantha

মানুষের প্রতিটি নেক আমলেরই প্রতিদান রয়েছে। আল্লাহ তাআলা মানুষকে তাঁর আমল ও নিয়ত অনুযায়ী প্রতিদান বা ফলাফল দান করেন। এ সব আমলের মধ্যে আল্লাহ তাআলার গুণবাচক নামসমূহের রয়েছে ফজিলতপূর্ণ আমল।

হাদিসে পাকে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘আল্লাহ তাআলার ৯৯টি গুণবাচক নাম আছে। যে ব্যক্তি এ গুণবাচক নামগুলোর জিকির (আমল) করবে; সে জান্নাতে যাবে।’ জান্নাত পাওয়া ঘোষণা ছাড়াও রয়েছে অনেক ফজিলত।

আল্লাহ তাআলার গুণবাচক নাম সমূহের মধ্যে (اَلْبَاطِنُ) ‘আল-বাতিনু’ একটি। এ গুণবাচক নামের তাসবিহ বা আমলে এক জন অন্য জনের প্রিয় মানুষ হয়। পরস্পরের মধ্যে বন্ধুত্ব হয়।

আল্লাহর গুণবাচক নাম (اَلْبَاطِنُ) ‘আল-বাতিনু’-এর জিকিরের আমল ও ফজিলত তুলে ধরা হলো-

উচ্চারণ : ‘আল-বাতিনু’
অর্থ : ‘নিজের জাত ও রহস্য গোপনকারী; সব কিছুর সন্নিকটে অবস্থানকারী; অপ্রকাশ্যমান; দৃষ্টি হতে অদৃশ্য।’

আল্লাহর ‍গুণবাচক নাম (اَلظَّاهِرُ)-এর আমল

ফজিলত
>> যে ব্যক্তি প্রতিদিন আল্লাহ তাআলার গুণবাচক নাম (اَلْبَاطِنُ) ‘আল-বাতিনু’-এর তাসবিহ ৩৩ বার পাঠ করবে; ওই ব্যক্তিকে আল্লাহ তাআলা গোপন রহস্যের অধিকারী বানাবেন।

>> যে ব্যক্তি সব সময় আল্লাহ তাআলার গুণবাচক নাম (اَلْبَاطِنُ) ‘আল-বাতিনু’-এর তাসবিহ পাঠ করবে; ওই ব্যক্তির প্রতি যার দৃষ্টি পড়বে; সে তার বন্ধু হয়ে যাবে।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহর সবাইকে এ ছোট্ট আমলটি করার মাধ্যমে আল্লাহর গোপন রহস্য জানার এবং প্রতিটি মানুষের প্রিয়জন হওয়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।