nagorikkantha

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় নাশকতার পরিকল্পনায় গোপন বৈঠকসহ পুলিশের উপর হামলার অভিযোগে পুলিশ আরেকটি মামলা করেছে। এ মামলায় জেলা বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমিন শিকদারকে প্রধান আসামি করে ৬২ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৫৮ জনকে আসামি করা হয়েছে। এছাড়া বিএনপির এ গোপন বৈঠক থেকে ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বুধবার রাত দেড়টার দিকে ফতুল্লা মডেল থানার এসআই কাজী এনামুল বাদী হয়ে মামলা করেছেন। মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, ৭ ফেব্রুয়ারি বুধবার রাত সোয়া ৯টায় ফতুল্লার দাপা ইদ্রাকপুর বালুরঘাট সংলগ্ন রহমানের পরিত্যাক্ত প্রগতি ডাইংয়ের তৃতীয় তলা বিল্ডিংয়ের দ্বিতীয় তলায় ওই গোপন সভাটি করে নাশকতার পরিকল্পনা চলছিল।

মামলায় ওই বৈঠকে থাকা জেলা বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমিন প্রধান, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক একরামুল কবির মামুন, শাহআলম অনুগামী সন্ত্রাসী তুষার আহম্মেদ মিঠু, তার ছেলে সাগর সিদ্দিকী, ফতুল্লা থানা যুবদলের সভাপতি শহিদুল ইসলাম টিটু, সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান মাসুদ, যুবদল নেতা রয়েল চৌধুরী, যুবদল নেতা গিয়াস উদ্দিন লাভলুসহ ৬২ জনের নাম ও অজ্ঞাত আরো ৫৮ জনকে আসামি করা হয়েছে।

এর আগে ৬ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার রাত ১২টায় ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাফিউল আলম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন যেখানে ফতুল্লায় নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের আহ্বায়ক ও সিটি করপোরেশনের ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদকে প্রধান আসামি করে ৪০ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরো ৫০-৬০ জনকে আসামি করা হয়। এ মামলায় বিএনপি নেতা হারুন অর রশিদ, পল্টু, মিলন ও শাহিনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামাল উদ্দিন মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।