nagorikkantha

খালেদা জিয়ার রায়ের প্রতিক্রিয়ায় আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও দলের মুখপাত্র ড. হাছান মাহমুদ বলেন, রায় প্রমাণ করে যে কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়। যত বড় ক্ষমতাধর ব্যক্তি হোন না কেন আইন সবার জন্য সমান।

ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ে রায়ের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া জানাতে সংবাদ সম্মেলন করে আওয়ামী লীগ। সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে আব্দুর রাজ্জাক, মুকুল বোস, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, এ কেম এনামুল হক শামীম, এস এম কামাল, ফরিদুন্নাহার লাইলী, ফজিলাতুনন্নেসা ইন্দিরা, অপু উকিল প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, এ রায় বিএনপি বা আওয়ামী লীগের বিষয় নয়। এটা আদালতের বিষয়।

তিনি বলেন, রায়ের দিনও বিএনপি নেতারা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ওপর হামলা করেছে। আদালতে যাওয়ার সময় বিএনপির নেতাকর্মীরা নাশকতা সৃষ্টির অপচেষ্টা করেছে। রায়কে তারা প্রলুব্ধ করার অপচেষ্টা করেছে। রায়ের প্রক্রিয়া ভণ্ডুলের জন্য অপচেষ্টা চালিয়েছে। এটা অত্যন্ত ন্যক্কারজনক। রায়কে ঘিরে বিএনপির নেতাকর্মীরা আদালতে যাওয়ার সময় পুলিশের ওপর হামলা চালায়। আইন শৃঙ্খলা বাহিনী এবং দলীয় নেতাকর্মীদের সতর্কতার কারণে বড় ধরনের নাশকতা তারা করতে পারেনি।

তিনি বলেন, এ রায়ে সন্তুষ্ট বা অ সন্তুষ্ট হওয়ার বিষয় নয়।

এর আগে আওয়ামী লীগ আনন্দ মিছিল ও উল্লাস করেছে। রায় শোনার সঙ্গে সঙ্গে বঙ্গবন্ধু এভিনিউ ও ধানমন্ডি কার্যালয়ের সামনে থাকা নেতাকর্মীরা উচ্চস্বরে উল্লাস প্রকাশ করে। বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে বের করা হয় আন্দ মিছিল। যুব মহিলা লীগ মিছিল বের করে। তাদের স্লোগান ছিল ‘এই মুহূর্তে খবর এলো খালেদা জিয়ার জেল হলো, খালেদা জিয়ার দুই গুণ দুর্নীতি আর মানুষ খুন।’

অপরদিকে ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ের সামনে বিপুল সংখ্য আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী সকাল থেকে জড়ো হয়। এছাড়া ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনেও বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী জড়ো হয়ে মহড়া দেয়। সকাল থেকেই আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ধানমন্ডি ও বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে জড়ো হয়।