nagorikkanthanagorikkantha

সোমবার সকালে গাজীপুরের কালীগঞ্জে বিল থেকে গলায় রশি ও বালির বস্তা বাধা অবস্থায় অমূল্য চন্দ্র দাস (৫২) নামে এক বৃদ্ধ কৃষকের ভাসমান লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, নরসিংদী জেলার পলাশ উপজেলার বরাব গ্রামের মৃত বলয় চন্দ্র দাসের পুত্র অমূল্য দাস (৫২) প্রায় ৩৫ বছর পূর্বে কালীগঞ্জ উপজেলার বক্তারপুর ইউনিয়নের ফুলদী উত্তর পাড়া গ্রামের পেরিমোহন রায়ের কন্যা বাসনা রানী দাসকে বিয়ে করে স্ত্রী পুত্র কন্যা নিয়ে শ্বশুর বাড়ীতে বসবাস করতেন। শনিবার রাত ১১টায় খাবার খেয়ে তিনি ঘরের বারান্দায় ঘুমিয়ে পড়েন। রোববার সকালে তার স্ত্রী বাসনা স্বামীকে কোথাও না পেয়ে দিনভর আশেপাশে খোঁজ করেন। পরে রাত আটটায় তার বোনের স্বামী প্রদীপ দাসকে পাঠিয়ে থানায় একটি সাধারণ ডাইরীভূক্ত করেন, যার নং ৯১০, তারিখঃ ২৪/০৯/১৭। নিখোঁজের একদিন পর সোমবার সকাল সাড়ে আটটায় পরিবারের লোকজন বাড়ীর পার্শ্ববর্তী বিলে অমূল্যের ভাসমান মৃতদেহ দেখে থানায় খবর দিলে এসআই হাবিব ঘটনাস্থলে গিয়ে গলায় প্লাষ্টিকের রশি ও বালির বস্তা বাধা অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করেন।

নিহতের মেয়ে শিখার স্বামী মনোজিত দে জানান, প্রায় ১৫/২০ বছর পূর্বে তার শ্বশুর স্থানীয় বিভাস নাগের নিকট হতে কিছু জমি ক্রয় করেন। বিক্রেতা জমি বুঝিয়ে দিলেও টাকার অভাবে তিনি জমিটি রেজিষ্ট্রি করতে পারেননি। কিছুদিন পূর্বে তিনি টাকার ব্যবস্থা করে বিভাসকে জমি রেজিষ্ট্রি করে দিতে বললে সে রেজিষ্ট্রি করতে অস্বীকার করেন। তবে তিনি আত্মহত্যা করেছেন নাকি তাকে হত্যা করা হয়েছে তা এখনই বলা সম্ভব হচ্ছে না।

কালীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) তরিকুল ইসলাম বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, সকালে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। তাৎক্ষনিকভাবে এ হত্যাকান্ডের কারণ জানা সম্ভব হয়নি।

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৮:২১ পি.এম