nagorikkanthanagorikkantha

পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। ইকুয়েডরের ৯ হাজার ফিট উচ্চতায় বাঁচা-মরার শেষ ম্যাচে জয় ছাড়া বিকল্প নেই আর্জেন্টিনার সামনে। কিন্তু কে, কারা জেতাবেন ম্যাচ? আলবিসেলেস্তাদের কোচ হোর্হে সাম্পাওলি চাহিদাপত্র দিয়ে দিয়েছেন। কিটোতে জিততে তার দলের সবাইকে খেলতে হবে লিওনেল মেসির মানের খেলা।

সাউথ আমেরিকার বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের শেষ তিন ম্যাচ জয় না পেয়ে খাদের কিনারায় পৌঁছেছে দুবারের বিশ্বজয়ী আর্জেন্টিনা, যার শেষ দুটি আবার নিজেদের মাঠেই। মেসি নিজের সর্বস্ব দিয়ে চেষ্টা করেছেন। সতীর্থদের দারুণভাবে বল বানিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি। গোল পাওয়া হয়নি, জেতাও হয়নি বর্তমান রানার্সআপদের।

শিষ্যদের কাছে তাই আকুল আবেদন রেখেছেন সাম্পাওলি। সবাইকে খেলতে বলছেন মেসির মত, ‘এই তিন ম্যাচে আমি এক অসাধারণ মেসিকে দেখেছি। প্রতিজ্ঞাবদ্ধ, দুর্দান্ত প্রেসিং। আমাদের বাকি খেলোয়াড়রা যদি মেসির ধারে কাছেও যেতে পারে, তাহলে ম্যাচটা আমরা ভালোভাবেই শেষ করতে পারব।’

কিটোতে আর্জেন্টিনা শেষ জয়টি পেয়েছে ২০০১ সালে। পরের ষোলো বছরে চার দেখার মধ্যে ইকুয়েডরের কাছে দুবার হেরেছে, বাকি দুটি করেছে ড্র। বিশ্বকাপে যেতে প্রায় অসাধ্য কিছুই করতে হবে সাম্পাওলির দলকে। জয়ের জন্য খেলোয়াড়দের নিজেদের উপর বিশ্বাস রাখা ছাড়া কোন বিকল্প দেখছেন না সাম্পাওলি।

‘আমি খেলোয়াড়দের জনে জনে এই বার্তা পৌঁছে দিয়েছি। আমাদের ইকুয়েডরের উচ্চতাকে জয় করতে হবে, চ্যালেঞ্জ নিতে হবে এবং গোল হাতছাড়া করা যাবে না। খেলোয়াড়দের এই বিশ্বাসও রাখতে হবে যে বিশ্বকাপ আমাদের থেকে মাত্র ৯০ মিনিট দূরে।’

১০ অক্টোবর, ২০১৭ ১৭:৫৪ পি.এম