nagorikkantha

প্রেম-ভালোবাসা, হিংসা থেকে শুরু করে অজানা সব কথা লুকিয়ে থাকে হাসির মধ্যে, হাসির ধরনের মধ্যে লুকিয়ে থাকে মানুষের মনের সব কথা। তবে সুখ প্রকাশেই হাসির ব্যবহার বেশি দেখা যায়। অনেকেই আছেন যারা সিরিয়াস কথায়ও জোরে হেসে থাকেন। জোরে হাসির কারণে চারপাশের মানুষের কাছ থেকে দু’ চারটি গরম বাক্য শুনেছেন অনেকে। আবার অনেক বন্ধু-বান্ধব আছেন যারা এ কারণে আপনাকে খোঁটা দিতে ছাড়েননি। এসব কারণে হয়তো অভ্যাস পরিবর্তন করার অবিরাম চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। অভ্যাস তো আর একদিনে পরিবর্তন হয় না।

মধ্য আমেরিকার এক বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল মনোবিজ্ঞানী গবেষণায় দেখেন যে, হাসির ধরনের মধ্যে মানুষের মনের ভাব লুকিয়ে থাকে। যারা জোরে হাসেন তারা সাধারণত প্রাণখোলা, সরল ও উদার মনের মানুষ।

গবেষনায় তিনি আরো দেখতে পান, যারা হাসিতে কৃপন তারা সব কিছুতেই কৃপন হয়।

তবে হাসি যেমন হোক না কেন মন ভালো রাখার পাশাপাশি শরীর সুস্থ রাখতে হাসির কোনো জুড়ি নেই।

হাসলে মুখ, বুক, পিঠ ও পেটের পেশি সংকুচিত ও প্রসারিত হয়। হাসি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়, সেই সঙ্গে রোগপ্রতিরোধকারী অ্যান্টিবডি তৈরি করে।

হাসি মনকে প্রফুল্ল ও সদা সতেজ রাখে ফলে হৃদরোগের সম্ভবনা অনেকাংশে কমে যায়। এছাড়া দুশ্চিন্তা ও একাকীত্ব কমিয়ে শরীরকে দেয় প্রশান্তি।

কর্মব্যস্ত চলার পথে আমরা যদি কারো সঙ্গে হাসিমুখে কথা বলি স্রষ্টার কাছে তা পুণ্যময় কর্ম হিসেবে গণ্য হবে।

হাসি শুধু মানুষের চোখ জুড়ায় না, মানুষের মনও জুড়ায়। মনকে প্রফুল্ল ও সদা সতেজ রাখতেই হোক আর ইবাদতের জন্য হোক নিয়মিত হাসুন।

১৫ অক্টোবর, ২০১৭ ১৪:২৪ পি.এম